ওয়েবসাইট অথবা ক্লিয়ার করে বললে ওয়েবসাইট ব্যবহার করে একটা কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে তথ্য  কিভাবে বিনিময় করা হয় তা জানার আগে কিছু শব্দের ব্যাপারে জানতে হবে। ওয়েবসাইটের কাজ সম্পর্কে জানতে কিছু শব্দ আমাদের বার বার

WWW (World Wide Web)

ভুলবশত অনেকেই মনে করে WWW এবং ইন্টারনেট একই। কিন্তু না, এটা ইন্টারনেট নয়। এটা ইন্টারনেটের একটা অংশ শুধু৷ মূলত, ইন্টারনেটের যত জায়গায় HTTP ব্যাবহার করা হয়, তাই WWW।
WWW একটি মাধ্যম যা ডিজিটাল ডিভাইস(মোবাইল, কম্পিউটার…) এবং ইন্টারনেটের মধ্যে তথ্য বিনিময়ের সম্পর্ক তৈরি করে। আর বলতেই হয়, যা এখন এতো বিশাল যে ১ বিলিয়নের উপরে ওয়েবসাইটের তথ্য এর অন্তর্ভুক্ত।

HTTP (HyperText Transfer Protocol)

HTTP হচ্ছে একটি প্রোটোকল যা WWW এর ভিত্তি। অন্যকথায় বললে, HTTP এর কারণেই WWW সম্ভব হয়েছে।
এই প্রোটোকলের মাধ্যমে ইন্টারনেটে হাইপারটেক্সট ডকুমেন্ট আদান-প্রদান করা হয়।

HTTPS (HyperText Transfer Protocol Secure)

HTTPS, HTTP এর একটি সিকিউর ভার্সন। এটাতে ফাইল ট্রান্সফারের সময় এনক্রিপটেড করে পাঠানো হয়।
HTTPS এ ফাইল ট্রান্সফারের সময় SSL(Secure Sockets Layer)/TLS(Transport Layer Security) এর একটি এক্সট্রা এনক্রিপশন লেয়ার ব্যবহার করা হয়। এই এক্সট্রা এনক্রিপশন লেয়ারটি অনেক হ্যাকারের এট্যাক থেকে অক্ষা করতে পারে।
এগুলো শুনতে অনেকটাই বিভ্রান্তিকর হতে পারে। কিছুই মনে রাখার প্রয়োজন নেই। যদি পারো আরো ভালো করে জানার জন্যে এগুলোর উইকিপিডিয়া পড়তে পারো। অথবা, পড়তে থাকো, কয়েকবার দেখলেই বুঝে যাবে।
URL(Uniform Resource Locator)
URL হচ্ছে ইন্টারনেটে WWW এর যেকোনো ডকুমেন্টের অফিশিয়াল নাম। কেনো অফিশিয়াল বললাম? অবশ্যই কারণ আনঅফিশিয়াল নামও আছে- ডকুমেন্টের নাম।
একাধিক ডকুমেন্যের নাম একই হতে পারে৷ কিন্তু তাদের URL একই হবেনা।
সব URL এর ফরম্যাট হবে এমন,
protocol://hostname.domainname/other-info
এখানে, protocol দিয়ে যেভাবে তথ্য আদান প্রদান করা হবে তা বুঝায়,
hostname দিয়ে WWW কে বুঝায়।
domainname হচ্ছে ওয়েবসাইটের নাম। এরপরে ডকুমেন্টের অন্যসব তথ্য থাকে।

Website/Domain Name

যেখানে তুমি এখন আছো এটাই ওয়েবসাইট। প্রত্যেকটা ওয়েবসাইটের নাম অবশ্যই ইউনিক হবে। মূলত একটি ওয়েবসাইটে অনেক গুলো ফাইল থাকে। বিশেষ করে HTML ফাইল। এছাড়াও CSS, JS সহ আর অন্যান্য ফাইল থাকে।
একটি ওয়েবসাইটের প্রতিটা পেজকে Web পাগে বলে৷ ওয়েবসাইটের প্রথম পেজটা হচ্ছে ঐ ঈয়েবসাইটের Home Ogae। ব্রাউজার থেকে ওয়েবসাইটের ধুকলে প্রথম যে পেজটা আসে সেটাই হোমপেজ। একটি ঈয়েবসাইটে একটির বেশি হোমপেজ থাকতে না।

Web Server

তুমি যেখানে আছো সেটা একটা ওয়েবসাইট, আর ওয়েবসাইটটা যেখাবে আছে সেটা কি? তোমার হাতের ডিভাইসটা? না, সেটা হচ্ছে Web Server
একটি ঈয়েব সার্ভার সবিসমিয় ইন্টারিনেটের সাথে কানেক্টেড থাকে। যদি কখনো সার্ভারের সাথে ইন্টারনেট সংক্সোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় তবে সেটা হচ্ছে সার্ভারের ডাউনটাইম।
প্রতিটা ঈয়েব সার্ভারের একটা নির্দিষ্ট এড্রেস থাকে। এই এড্রেসটি ৪টি সিরিজের সংখ্যা দিয়ে তৈরি। সংখ্যাগুলো ০ থেকে ২৫৬ এর ভিতরে হবে এবং এদের মাঝে ফুলস্টপ থাকে। এই এড্রেসকে IP(Internet Protocol) এড্রেসও বলা হয়ে থাকে
একটা জিনিস লক্ষ করো আইপি এড্রেস যদি ০ এবং ২৫৫ এর মাঝে ৪টি সিরিজের সংখ্যা হয়ে থাকে, তবে ২৫৬*২৫৬*২৫৬*২৫৬= ৪২৯৪৮৬৭২৯৬টির বেশি ওয়েবসাইট ইন্টারনেটে কি থাকতে পারবে না?
যদি উত্তরে না বলে থাকো তবে, আনফরচুনেটলি তুমি ভুল। উত্তর হছে থাকতে পারবে।
আইপি এড্রেস একটি ওয়েবসার্ভারের হয় একটি ওয়েবসাইটের নয়।
একটি ওয়েব সার্ভারে অনেক ওয়েবসাইট থাকতে পারবে। আর কয়েক মিলিয়ন ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে এটাই হয়। অনেকগুলো ঈয়েবসাইট একটি সার্ভারে থেকে থাকে।
একটা ওয়েবসাইটেএ জন্যে একটা আইপিএড্রেস মানে, ঐ এড্রেসের সার্ভারে শুধু একটি ঈয়েবসাইটই থাকবে। যার জন্যে এর দামও তুলনামূলকবেশি হবে।
আরেকটি জিনিস হচ্ছে, একটি ঈয়েবসাইটের বা ডোমেইন নেমের সারাজীবন একটিই আইপিএড্রেস থাকবে ব্যাপারটা এমন নয়। যদি একটি সার্ভার থেকে অন্য সার্ভারে ঈয়েবসাইট নেওয়া হয় তবে, ঈয়েবসাইটের আইপি এড্রেস হবে নতুন সার্ভারের আইপিএড্রেস।
একটি সার্ভারের আইপি এড্রেস হবে ৬৮.২৪৯.১৫৬.১০৬
যদি সেয়ার্ড সার্ভারে থাকে তবে একটি ঈয়েবসাইটের আইপি এড্রেস হবে ৬৮.২৪৯.১৫৬.১০৬:XX
এখানে, XX হছে পোর্ট নাম্বার।

Web Browser

Web Browser হচ্ছে একটি সফটওয়্যার যা তুমি তোমার ডিভাইসে ইন্সটল করে থাকো ওয়েব রিসোর্স ব্রাউজ করার উদ্দেশ্যে।
পরের চাপ্টারগুলোতে, তুমি ওয়েব ব্রাউজার কিভাবে কাজ করে বিস্তারিত জানতে পারবে।

SMTP(Simple Mail Transfer Protocol)

HTTP যদিও ইন্টারনেটে ডকুমেন্ট ট্রান্সফারের জন্যে ব্যবহৃত হয়। সব ডকুমেন্টের জন্যে HTTP ব্যবহৃত হয় না।
ইন্টারনেটে ইমেইল ট্রান্সফারের জন্যে ব্যবহৃত হয় SMTP সার্ভার।

ISP(Internet Service Provider)

ISP হচ্ছে এমন কোম্পান যার থেকে তুমি ইন্টারনেটের সাথে কানেক্ট করার জন্যে ইন্টারনেট কানেকশন সার্ভিস কিনে থাকো।
সহজ ভাষায় তুমি তোমার ISP এর ওয়েব সার্ভার থেকে নিজের জন্যে একটু জায়গা কিনো, ইন্টারনেটের সাথে কানেক্টেড থাকার জন্যে।
আবার তোমার ওয়েবসাইট রাখার জন্যেও হোস্টিং কোম্পান থেকে জায়গা কিনতে হবে। এর ব্যাপারে বিস্তারিত পরে জানবে।

HTML (Hyper Text Markup Language)

একটা ঈয়েবসাইটের ভিত্তি হচ্ছে HTML ফাইল। এই HTML ফাইলে কিছু কড লিখা থাকে যা ওয়েবসাইটের অভ্যন্তরীণ কাঠামো তৈরি করে

HyperLink

HyperLink বা Link হচ্ছে অনেকটা এক্সেস পয়েন্টের মতো। গেমের চেক পয়েন্টের মতো এখানেও একটা লিংকে একটা নির্দিষ্ট রিসোর্স থাকে।
এটি ছবি হতে পারে, ফাইল হতে পারে, অথবা টেক্সটও হতে পারে।

DNS(Domain Name System)

যখন কেউ একটি ওয়েবসাইটের নাম লিখে ব্রাউজারে সার্চ করে, তখন ব্রাউজার ডিএনএস-কে জিজ্ঞাসা করবে যে এই ওয়েবসাইটের আইপি কি।

FTP(FILE TRANSFER PROTOCOL)

একটি ওয়েব সার্ভার এবং কম্পিউটারের মধ্যে ফাইল ট্রান্সফারের জন্যে FTP ব্যবহৃত হয়।

Got Something to Say?

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.